তেল লুটপাট করতে সিরিয়ায় আরো মার্কিন সামরিক বহর

সিরিয়ার তেল এবং প্রাকৃতিক সম্পদ লুটপাটের প্রতিযোগিতা করতে ইরাক থেকে সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় হাসাকা প্রদেশের নতুন করে একটি সামরিক বহর পাঠিয়েছে মার্কিন সরকার।

সিরিয়ার তেল ও প্রাকৃতিক সম্পদ লুটপাটের ক্ষেত্রে আমেরিকা দৃশ্যত তার আঞ্চলিক মিত্রদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নেমেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসাকা প্রদেশের ইয়ারুবিয়া শহরের স্থানীয় কয়েকটি সূত্র সিরিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা  জানিয়েছে যে, প্রায় ৫০টি গাড়ির একটি বহর ইরাকের আল-ওয়ালিদ ক্রসিং পয়েন্ট পেরিয়ে সিরিয়ার ভূখণ্ডে প্রবেশ করেছে। মার্কিন সামরিক বহরে ট্রাক এবং তেল ট্যাংকার রয়েছে।

গত বছরের অক্টোবর মাস থেকে মার্কিন সরকার সিরিয়ার তেল ক্ষেত্রগুলো নিয়ন্ত্রণের জন্য নতুন করে সেনা মোতায়েন করেছে।

এর আগে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছিলেন এবং সে অনুযায়ী বেশ কিছু সেনা প্রত্যাহার করা হয়েছিল।

সেনা মোতায়েনের ব্যাপারে পেন্টাগন দাবি করে আসছে- সিরিয়ার তেল ক্ষেত্রগুলো যাতে উগ্র সন্ত্রাসীদের হাতে না পড়ে সে জন্য তারা সেনা মোতায়েন করে সেগুলোকে পাহারা দিচ্ছে।

অথচ ডোনাল্ড ট্রাম্প এর আগে বলেই ফেলেছিলেন যে, সিরিয়ার তেল ক্ষেত্রগুলো নিয়ন্ত্রণে আমেরিকার অর্থনৈতিক স্বার্থ রয়েছে। সিরিয়া সরকার বারবার বলছে, দেশের তেল সম্পদ লুট করার জন্য মার্কিন সেনারা সিরিয়ার ভেতরে অবস্থান করছে।

আরও খবর